| |

ঠান্ডায় ভিটামিন সি নিয়ে ভুল ধারণা

কাওসার রহমান :

আপনি যদি সর্দি-কাশির সমস্যায় ভুগেন তাহলে খুব প্রচলিত একটি কথা শুনে থাকবেন যে, আপনার ভিটামিন সি খাওয়া প্রয়োজন। অর্থাৎ ভিটামিন সি ট্যাবলেট বা খাবার যেমন কমলা খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়।

কিন্তু ঠান্ডা নিরাময়ে ভিটামিন সি-এর পুরো ধারণাটি আসলে ভুল।

এই ভুল ধারণাটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে নোবেল পুরস্কার বিজয়ী বিজ্ঞানী লিনাস পলিং ১৯৭০ সালে ‘ভিটামিন সি অ্যান্ড দ্য কমন কোল্ড’ নামক বইয়ে ঠান্ডায় ভিটামিন সি’র অলৌকিক উপকারিতা বর্ণনা করার পর। ঠান্ডার জন্য ভিটামিন সি এর উপকারিতার বিষয়টি লিনাস তার মৃত্যুর আগ পর্যন্ত অর্থাৎ ১৯৯৪ সাল পর্যন্ত প্রচার করে গেছেন।

কিন্তু সারা সোডস পপুলার সায়েন্সে লিখেছেন, সর্দি-কাশি থেকে পরিত্রাণের জন্য ভিটামিন সি যে আসলেই কার্যকরী ভূমিকা রাখে, চিকিৎসা বিজ্ঞানে তার কোনো প্রমাণ নেই। ভিটামিন ‘সি’ সর্দি-কাশির প্রকোপ কমায় না এবং প্রতিরোধেও (বেশির ভাগ লোকের ক্ষেত্রে) তেমন ভূমিকা রাখতে পারে না।

তিনি বলেন, কিছু গবেষণায় দেখা গেছে নিয়মিত ভিটামিন সি খেলে ঠান্ডার স্থায়ীত্ব সংক্ষিপ্ত হতে পারে কিন্তু ঠান্ডায় আক্রান্ত হওয়ার পর খেলে হবে কার্যকরী হয় না।

অন্য একটি অ্যাসোসিয়েশনের গবেষণায় দেখা গেছে, প্রতিদিন ভিটামিন সি খেলে কার্ডিওভাসকুলার রোগের ঝুঁকি কমায়। এছাড়া এর অন্য কোনো সম্পর্ক নেই। আপনি যদি ভিটামিনের স্বল্পতায় ভোগেন তাহলে সম্পুরক হিসেবে গ্রহণ করলে ক্ষতি নেই। কিন্তু অধিকাংশের ক্ষেত্রে এটা কোনো প্রভাব ফেলতে পারে না।

তথ্যসূত্র : মিরর